সাগরিকা সমাজ উন্নয়ন সংস্থা

কেজিএফ সুফলন ঋণ কর্মসুচীর বার্ষিক প্রতিবেদন (জুলাই ’২০১৫-জুন’ ২০১৬)

 

১। প্রকল্পের নাম: কেজিএফ কর্মসূচি

২। প্রকল্পের পটভূমি ও বার্ষিক প্রতিবেদনের সারসংক্ষেপ :

সীমিত ভূ-সম্পদ ব্যবহারের মাধ্যমে বাংলাদেশের প্রায় ১৫০ মিলিয়ন জনগোষ্ঠির খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করা একটি কঠিন চ্যালেঞ্জ । এ চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার লক্ষ্যে সরকারি ও বেসরকারি উদ্যোগে আভ্যন্তরীন খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধির পাশাপাশি প্রাণিসম্পদ ও মৎস্য সম্পদ উন্নয়নে কার্যকরি পদক্ষেপ গ্রহন করেছে ।স্বাধীনতার পববর্তী ৪০ বছরে বাংলাদেশ নানাবিধ সংস্কার,উদ্ভাবনীমূলক প্রযুক্তি,নীতি-কৌশল কাজে লাগিয়ে খাদ্যশস্য উৎপাদনে সন্তোষজনক অগ্রগতি সাধিত হলেও পরিবার ও ব্যাক্তি পর্যায়ে এখনও খাদ্য নিরাপত্তা শতভাগ নিশ্চিত করা সম্ভব হয় নাই।কৃষির অগ্রগতির সাথে বাংলাদেশের বিপুল জনগোষ্ঠির খাদ্য নিরাপত্তা প্রত্যক্ষভাবে জড়িত ।একটি লাভজনক,টেকসই ও পরিবেশবান্ধব কৃষি ব্যবস্থা জনসাধারণের দীর্ঘমেয়াদি খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের জন্য অপরিহার্য ।কৃষি বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির চালিকা শক্তি । সার্বিক জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে এ খাতের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ অবদান রয়েছে । দেশের শ্রমশক্তির মোট ৪৭.৩৩ শতাংশ কৃষিখাতে নিয়োজিত। মোট রপ্তানি আয়ের ১২ শতাংশ কৃষিজাত পণ্য রপ্তানির মাধ্যমে অর্জিত হয়। ষষ্ঠ পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা, জাতীয় কৃষি নীতি ও সহ¯্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রাকে সামনে রেখে কৃষি খাতের উন্নয়নে সরকারের সর্বাত্বক প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।২০০৮ সালে কুয়েতে অনুষ্ঠিত চতুর্থ ইসলামী অর্থনৈতিক ফোরামে কুয়েতের মহামান্য আমীর শেখ সাবাহ্ আল- আহম্মদ আল জাবের আল সাবার ঘোষনা অনুযায়ী তার উদ্যোগে ইসলামী দেশ সমূহের খাদ্য নিরাপত্তা অর্জনে সহায়তা প্রদান ও মৌলিক খাদ্য চাহিদা নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে ” কুয়েত গুড উইল ফান্ড” প্রতিষ্ঠিত হয় । বাংলাদেশ সরকারের বিশেষ আগ্রহের প্রেক্ষিতে Kuwait Fund for Arab Economic Development(KFAED), ‘Kuwait Goodwill Fund for the Promotion of Food Security in Islamic Countries’ শীর্ষক কর্মসূচির আওতায় কৃষি উৎপাদন এবং কৃষি সম্পর্কিত ক্ষুদ্র ও ছোট ব্যবসা সংশ্লিষ্ট কর্মকান্ডে ঋণ কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ১০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অনুদান সহায়তা প্রদানের সিদ্ধান্ত গ্রহন করে।সে অনুযায়ী জানুয়ারী ৩০,২০১১ তারিখে বাংলাদেশ সরকার, পিকেএসএফ এবং কাফেদ এর মধ্যে একটি ত্রিপক্ষীয় চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।এই আর্থিক সহায়তা চুক্তির প্রেক্ষিতে ফাউন্ডেশনের মূল¯্রােত কার্যক্রমভূক্ত সুফলন ও অগ্রসর কার্যক্রমের আওতায় সংগঠিত সদস্যদের আর্থিক ও কারিগরি সহায়তা প্রদান করা হবে।